15 49.0138 8.38624 arrow 0 both 0 4000 1 0 horizontal https://bjingm.org 300 4000 - 0

যেকোন দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে আছে জামায়াত- ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সেক্রেটারি ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ বন্যা দুর্গত অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে বলেন, জামায়াতে ইসলামী বন্যাসহ যেকোন দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় মানুষদের পাশে সাধ্যমতো দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে এবং ভবিষ্যতেও তা অব্যাহত রাখবে ইনশাআল্লাহ। তিনি বন্যার্ত মানুষদেরকে বিপদে ধৈর্য্য ধারণ করার আহ্বান জানান এবং পরিস্থিতি মোকাবিলায় মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের কাছে সহযোগিতা চেয়ে দোয়া করেন। এসময় তিনি বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ দুর্গত অসহায় মানুষের পাশে সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসতে হবে। পানিবন্দি মানুষদের কল্যাণে দলমত নির্বিশেষে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করে সবাইকে ভূমিকা রাখতে হবে। সরকারের উচিত প্রত্যন্ত এলাকার বন্যাকবলিত এই সকল মানুষের তালিকা করে তাদের পাশে দাঁড়ানো।

তিনি আজ শুক্রবার সকালে ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের ডেমরা থানার ৭০নং ওয়ার্ডের বন্যা কবলিত রাজাখালি, ঠুলঠুলিয়া এবং ধিৎপুর এলাকায় শতাধিক পরিবারের মাঝে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ত্রাণ বিতরণ করেন। ত্রাণ বিতরণকালে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য আব্দুস সবুর ফকির, অধ্যাপক মোকাররম হোসাইন খান, ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য কামাল হোসাইন, ডেমরা থানা উত্তরের আমীর মোহাম্মদ আলী, জামায়াত নেতা মিজানুর রহমান, দেলোয়ার হোসেন, ইসমাইল হোসেন, সাহেব আলী, ওমর আলী এবং আব্দুর রহিম প্রমুখ সহ স্থানীয় জামায়াত শিবিরের নেতৃবৃন্দ।

ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ বলেন, বৃষ্টির মৌসুম শুরুর সাথে সাথেই নদী ভরাট, অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা এবং দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের অদক্ষতা ও অব্যবস্থাপনার ফলে প্রতি বছরই মানুষ পানিবন্দী হয়ে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা না থাকায় সাধারণ মানুষের দূর্ভোগ শেষ হয় না। বন্যার্তদের দুর্ভোগ লাঘবের প্রধান দায়িত্ব সরকারের। তিনি সরকারের দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষকেও বন্যার্তদের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা ও কার্যকর উদ্যোগ গ্রহনের আহবান জানান। তিনি আরও বলেন, ইসলামের সু-মহান আদর্শের ভিত্তিতে ন্যায় ও ইনসাফ ভিত্তিক কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা হলে সাধারণ মানুষের আর কোন দুর্ভোগ থাকবেনা উল্লেখ করে তিনি সেই কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে ভুমিকা পালনের আহবান জানান।